Home / গল্প / তোর ভালবাসার ফাঁদে……।। প্রেম মানেই কি সব কিছু করা??????

তোর ভালবাসার ফাঁদে……।। প্রেম মানেই কি সব কিছু করা??????

<<<<এই গল্পটি আজকালের ভালবাসার শেষ পরিনতি নিয়ে করা>>>>>

মিতু দশম শ্রেণীতে পরে। অনেক মেধাবী ছাত্রী। স্কুলের সবাই মিতুকে খুব ভালোবাসে।

মিতু তার বাবা মার একমাত্র মেয়ে অনেক আদরের। একদিন মিতু আর তার কয়েক বান্ধবী মিলে স্কুলে যাইতেছে হঠাৎ বাইকে এক ছেলে এসে তাদের সামনে এসে দাড়ায়।

বাইকে থেকে নেমে এসে মিতুর সামনে গিয়ে বলে এই মেয়ে তোমার নাম কী?

মিতু :ভয়ে ভয়ে বলে মিতু।

ছেলেটি বলল আমি তোমাদের বড়ো ভাই। আমাকে দেখলে সালাম দিবে এই বলে চলে গেল।

এই ছেলেটা নাম অনিল বড়োলোকের বোকাটে ছেলে। অনিল কলেজে পড়ে। এই ভাবে প্রতিদিন অনিল মিতুর সামনে আসে আসতে আসতে হঠাত মিতুর অনিলকে ভালো লাগে। অনিল মিতুর মনকে এমন ভাবে জয় করে ।

মিতু চোখ বন্ধ করে অনিলকে বিশ্বস করে।কয়েক মাস তাদের প্রেম ভালোই চলছিল।

সারা রাত ধরে ফোন আলাপ, চ্যাটিং করা , ঘুরতে যাওয়া ইত্যাদি…………।।

একদিন অনিল মিতুকে দেখা করতে বলে। মিতু তার স্কুলের সামনে দাঁড়িয়ে থাকে। অনিল একটা গাড়িতে এসে মিতুকে বসতে বলল।

মিতু গাড়িতে বসে অনিলকে বলল : অনিল আমরা কোথায় যাচ্ছি ????

অনিল বলল: তোমাকে একটা সুন্দর give দিব।

মিতু: বলো না বাবু কী give ??????

আর আমার কোথায়া যাইতেছি।

অনিল:আমার বন্ধুর বাড়িতে। তোমাকে life beast give দিব।

ওরা রহিতের বাড়িতে আসলো। রহিত অনিলের বন্ধু। hi রহিত কেমন আছিস। আন্টিরা সবাই ভালো আছে।

রহিত: হ্যাঁ সবাই ভালো আছে।মা বাবা কেউ বাসায় নাই। তরা বস আমি রনি আর মনিরকে নিয়ে আসি।

অনিল : ok যা। আসার সময় cool drink নিয়ে আছিস।

রহিত: ok। তোরা enjoy কর।

মিতু: আমার কিন্তু খুব ভয় করতেছে। অনিল: কেনো sona আমি তো আছি। আমি থাকতে তোমার কিসের ভয়।এই বলে অনিল মিতুর অনেক কাছে আসল।

মিতু: দুস্ট ছেলে। দেখ তুমি কিন্তু আমর কাছে আসবে না।

অনিল: মিতুকে কোলে করে একটা ঘরে নিয়ে যায়।

অনিল আস্তে আস্তে মিতুর আরো কাছে যায়। তাকে অনেক আদর করতে থাকে । এক সময় অনিল মিতুর সব কাপড় খুলতে শুরু করে। মিতু তাকে অনেক বার বারন করে। অনিল শুনলো না। মিতুর সাথে জড় করে সব কিছুই করে নেয়।

মেঝে মিতুর সব কাপড় পড়ে আছে। কাপড় তুলতে গেতেই দরজা খুলে অনিলের বন্ধুরা চলে আসে।

রহিত: অনিল তোরা যা করেছিস সব কিছু এই ক্যমেরায় ভিডিও করা আছে।

অনিল: দেখ রহিত তরা আমার বন্ধু। আমার সাথে এটা করিছ না। ভিডিও টা আমাকে দিয়ে দে ।

রহিত: অনিলকে একটা চড় মারল। মেরে মেঝেতে ফেলে দেয়। মিতুকে বলে মিতু তুমি যদি আমাদের কথায় রাজি না হয়ও তাহলে তোমাদের এই ভিডিওটি viral করে দিব।

মিতু: অনেক বার তাদের হাতে পায়ে ধরে। কিন্তু কেউ তার কোন কথা শুনলো না। সবাই মিলে তাকে Rape করে।

মিতু বেথায় কান্না করতে করতে বেরিয়ে যায়। পরে মনে হল তার ফোন টা ঘড়ে রেখে এসেছে। ফোন নিতে আবারও ঘড়ে গেল মিতু।

ঘড়ের সামনে গেতেই হাসির শব্দ শুনতে পেরে দাড়িয়ে গেল সে । অনিল ও তার বন্ধুরা বলতেছে আরে এই মিতু আমাদের ভাল enjoy করাইছে।

ভাই অনিল পরের পাখিকে খাচায় কবে ধরবি????

cool drink খাচ্ছে আর হাসতেসে। এই কথা গুলো শুনে মিতু খুব ভালো ভাবে বুঝতে পারে এই সব কিছুই অনিলের plan ছিল।

তাঁর জন্য এটা প্রেমের ফাদ ছিল । আর মিতু এই ফাদে ভাল করে পরেছে। মিতু ফোন না নিয়েই কাদতে কাদতে চলে গেল।মিতুরা খুব গরিব ছিল মানসম্মানের ভয় রয়েছে।মা বাবার কাছে বলেও লাভ নাই।তাই কোন প্রতিবাদ না করে মুখ বুঝে অন্যায়ের সায় দেয় মিতু।

About Admin Md. Lokman Hossen

আমার এ প্রেম নয় তো ভীরু, নয় তো হীনবল - শুধু কি এ ব্যাকুল হয়ে ফেলবে অশ্রুজল। মন্দমধুর সুখে শোভায় প্রেম কে কেন ঘুমে ডোবায়। তোমার সাথে জাগতে সে চায় আনন্দে পাগল।

Check Also

বাবু তোমার একটা লুঙ্গী পরা পিক দিবা? [বেস্ট রোমান্টিক রম্য গল্প -২০১৯ ]

বাবু তোমার একটা লুঙ্গী পরা পিক দিবা? [বেস্ট রোমান্টিক রম্য গল্প -২০১৯ ]

মাঝরাতে গার্লফ্রেন্ড ফোন দিয়ে বলল ‘বাবু তোমার একটা লুঙ্গী পরা পিক দিবা?’ গার্লফ্রেন্ডের মুখ থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *